রুপায়ন গ্রুপের এমডির অবহেলায় – ভাঙ্গুড়ার শিশু জিহাদকে বাঁচানো গেল না

ভাঙ্গুড়া প্রতিনিধি : মাথায় টিউমার নিয়ে জন্ম পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার জিহাদ হোসেন আর বেঁচে নেই। রুপায়ন গ্রুপের এমডির অবহেলায় শেষ পর্যন্ত তার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬ মাস। বৃহস্পতিবার চরভাঙ্গুড়া গ্রামের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। জিহাদের বাবা সুজন আলী জানান, আমার শিশু পুত্রের ছবিসহ গত ২২ জুলাই ইত্তেফাকে একটি সংবাদ প্রকাশের পর ঢাকার রুপায়ন গ্রুপের এমডি পরিচয় দিয়ে রুবেল আহমেদ তার চিকিৎসার ভার গ্রহনের জন্য আগ্রহ জানিয়ে ইত্তেফাকের ভাঙ্গুড়া সংবাদদাতা মাহবুব-উল-আলম কে ফোন করেন। এমডি সাহেব ভাঙ্গুড়া হেলথ কেয়ার লিঃ এর চিকিৎসক ডাঃ মাসুদ করিমের সাথে কথা বলে জিহাদের অসুস্থ্যতা সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন। এই খবরে আমরা আনন্দে আতœহারা হয়ে উঠলাম। তাহলে জিহাদ সুস্থ্য হয়ে আমাদের মাঝে অনেকদিন বেঁচে থাকবে।

অতপর জিহাদের বাবা-মা সন্তানকে নিয়ে গত আগষ্ট মাসে গাজীপুরে এক দরিদ্র আতœীয়ের বাসায় গিয়ে ওঠেন। এমডি রুবেল তার অফিসের সফি ও মহসীন সাহেবের ফোন নম্বর দিয়ে তাদের সাথে যোগাযোগ করে জিহাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে সুজন আলীকে পরামর্শ দেন। সে মোতাবেক সুজন আলী অসুস্থ্য পুত্রকে নিয়ে মিরপুর হাইটেক মাল্টিকেয়ার হসপিটাল লিঃ এ দৌড়াদৌড়ি করেন। অবশেষে ২২ সেপ্টেম্বর সেখানে এবং মহাখালি আইটিডিডিআর শিশু হসপিটালে জিহাদের ব্লাডসহ সবধরনের টেস্ট করা হয়। এ খরচ তারাই বহন করেন। ব্রেইন টিউমার বিশেষজ্ঞ ডাঃ আলামিন সালেক জানান জিহাদের অপারেশন করতে চার লাখ টাকা খরচ হবে। বিষয়টি মহসীন সাহেবকে জানানো হয় কিন্তু তারা এর পর আর কোনো যোগাযোগ করেননি এমনকি ফোন করলেও তারা রিসিভ করেননি বলে সুজন আলী জানান। তারা দীর্ঘদিন অতি কষ্টে গাজীপুরে ঐ আতœীয় বাড়িতে অপেক্ষা করেন। শেষ পর্যন্ত রূপায়ন গ্রুপের এমডি রুবেলের অবহেলায় বিনা চিকিৎসায় বুধবার সন্ধ্যায় জিহাদ মারা যায়। এ ব্যাপারে রূপায়ন গ্রুপের এমডি রুবেল আহমেদের বক্তব্য জানতে বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মুঠো ফোনে (০১৭৩৩৩৮৫৮৮০) ডায়াল করলে তিনি রিসিভ করেননি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author