মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম হত্যায় জড়িত মূল আসামি গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে রুপপুর মোড়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

প্রধান মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করে হত্যার বিষয় জানানোর ঘোষনা

স্টাফ রিপোর্টার,ঈশ্বরদী ॥ মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামীলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম হত্যায় জড়িত মূল আসামি গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে রবিবার সকালে ঈশ্বরদীর রুপপুর মোড়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। পাকশী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডাকে ঘন্টাকাল ব্যাপি অনুষ্ঠিত এসব কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন,মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গোলাম মোস্তফা চান্না,আওয়ামীলীগ সভাপতি হাবিবুল ইসলাম,সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম,আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুজ্জামান পিন্টু,আওয়ামীলীগ নেতা জহুরুল ইসলাম মালিথা জেলা পরিষদ সদস্য সাইফুল ইসলাম বাবু মন্ডল, মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিমের ছেলে তানভীর রহমান তন্ময়,শিক্ষক সমিতির সভাপতি ফজলুল হক,অধ্যক্ষ পারভেজ সরদার, মাদ্রাসা সুপার সুপার আব্দুল করীম, ও মোস্তাফিজুর রহমান ছবি,আওয়ামীলীগ নেতা রেজাউল করীম রাজা,মহিদুল ইসলাম,প্রধান শিক্ষক ইসাহক আলী,মুক্তিযোদ্ধা সাহাবউদ্দিন সেলিম,আবুল কালাম আজাদ,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের আহবায়ক,আক্তারুজ্জামান মালিথা,মিরাজ হোসেন,ইকবাল হায়দার,মাসুদুর রহমান বিশ্বাস ও পলাশসহ অন্যরা। পাকমী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার জাহাঙ্গীর আলম এতে সভাপতিত্ব করেন। বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, মুক্তিযোদ্ধা সেলিম হত্যার নির্দেশ দাতা পাকশী ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হককে গ্রেফতার করতে হবে। অন্যথায় পরবর্তীতে মানববন্ধন বন্ধন পরিহার করে মিল,কলকারখানা,শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সকল পর্যায়ে হরতাল ধর্মঘটসহ বৃহত্তর আন্দোলন করা হবে। সমাবেশে গণসাক্ষর কর্মসূচি শুরু করা হয়। বক্তারা পুলিশের প্রতি আস্থা আছে উল্লেখ করে বলেন,সেলিম হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত দু’জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। কিন্তু নির্দেশ দাতা গড ফাদার প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তাকে গ্রেফতার করতে হবে। একই সাথে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের পাকশী ইউনিয়নে বসবাসের অধিকার হারিয়ে ফেলেছে। তাই তাদের এলাকা ছেড়ে চলে যেতে হবে বলেও উল্লেখ করা হয়। আয়োজকরা প্রধান মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করে সব বিষয় জানাবেন বলে ঘোষনা দেন।#

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author