Main Menu

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে দু’দিন ব্যাপী পাবনা প্রেসক্লাবের ৫৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

পাবনা প্রতিনিধি ঃ
শোভাযাত্রা চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা শুভেচ্ছা বিনিময় কেক কাটাসহ বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ২ দিন ব্যাপী দেশের গৌরব ও ঐতিহ্য বাহিত পাবনা প্রেসক্লাবের ৫৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। দিনটি উদযাপন উপলক্ষে ১ মে বিকাল ৩ টায় পাবনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সন্ধ্যা ৭ টায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরুষ্কার বিতরণ করা হয়। ২ মে সকাল ১০ টায় পাবনা প্রেসক্লাব থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। বাদ্যযন্ত্রসহ বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাটি পাবনা শহরের ব্যস্ততম আব্দুল হামিদ সড়ক প্রদক্ষিন করে পাবনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে অতিথিবৃন্দ কেক কেটে পাবনা প্রেসক্লাবের ৫৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করে। পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যাপক শিবজিত নাগের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্জ প্রফেসর ড. মো. রোস্তম আলী, দুর্নীতি দমন বিভাগের সাবেক কমিশনার পাবনা প্রেসক্লাবের জীবন সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সাহাবুদ্দিন চুপ্পু, পাবনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল, জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক এম.সাইদুল হক চুন্নু, পাবনা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠা কালীন সাধারণ সম্পাদক দেশ বরণ্য লেখক বাংলা একাডেমীর একুশে পদকপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা রণেশ মৈত্র এবং পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি। সন্ধ্যায় ৭ টায় সাংবাদিকতায় একুশে পদকপ্রাপ্ত রণেশ মৈত্রের পদকটির রেপ্লিকা প্রেসক্লাবকে হস্তান্তর করা হয়। এরপর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠান সমূহ সঞ্চালন করেন, পাবনা প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি কামাল আহম্মেদ সিদ্দিকী।
উল্লেখ্য, ১৯৬১ সালের ১ মে ঐতিহ্যবাহী পাবনা প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠিত হয়। এরপর ১৯৬১ সালের ৭ ও ৮ মে মফস্বল সাংবাদিকদের উদ্যোগে পাবনা প্রেসক্লাবে তৎকালীন পূর্বপাকিস্তান সাংবাদিক সমিতি গঠন করা হয়। যেটি বর্তমানে বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি নামে পরিচিত। পাবনা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা পাবনায় ভুট্টা আন্দোলন, দেশের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনসহ মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে অন্ত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।