Main Menu

বড়াইগ্রামে বাল্য বিয়ের অভিযোগে ভাইসহ বর আটক : জরিমানা

নাটোরের বড়াইগ্রামে সোমবার দুপুরে বাল্য বিয়ের অভিযোগে বর ও বরের বড় ভাইকে আটক করা হয়েছে। উপজেলার বড়াইগ্রাম সদর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামে বরের বাড়িতে বৌভাতের অনুষ্ঠান থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। পরে ভাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাদের দুজনকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বাল্য বিয়ের শিকার সুমাইয়া খাতুন (১৪) জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার পম পাথুরিয়া গ্রামের আমির হামজার মেয়ে ও চাপিলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী।
আটকরা হলো- বর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের আনসার আলী ব্যাপারীর ছেলে রব্বেল ইসলাম (১৬) ও তার বড় ভাই রাশিদুল ইসলাম (২৪)।
ইউএনও’র কার্যালয় সুত্রে জানা যায়, গত শনিবার কিশোর রব্বেল আলীর সঙ্গে গোপনে পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে স্কুলছাত্রী সুমাইয়া খাতুনের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার দুপুরে বরের বাড়িতে বৌভাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনোয়ার পারভেজ সেখানে হাজির হয়ে বাল্য বিয়ের অভিযোগে বর ও বরের ভাইকে আটক করে পুলিশ।
এ ব্যাপারে ইউএনও আনোয়ার পারভেজ জানান, বাল্য বিয়ে বন্ধে আমরা বদ্ধ পরিকর। আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে বাল্য বিয়ে দেয়ার অপরাধে বর ও বরের ভাইকে আটক করে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।