Main Menu

হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি

চাটমোহরে হাতি সহ মাহুতকে আটকের পর ভ্রাম্যমান আদালতে জড়িমানা

পাবনার চাটমোহর পৌর শহরে সার্কাসের হাতি দিয়ে চাঁদাবাজির সময় হাতি সহ মাহুতকে আটক করে উপজেলা প্রশাসন। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে সার্কাসের ম্যানেজারকে ডেকে এনে দুই হাজার টাকা জড়িমানা আদায় ও পরবর্তীতে এমন কাজ না করার জন্য মুছলেকা নিয়ে হাতি সহ মাহুতকে মুক্তি দেয়া হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইকতেখারুল ইসলাম।

চাটমোহর গুনাইগাছা মাঠে আগত নিউ কমলা সার্কাসের ম্যানেজার ইব্রাহিম হোসেন। তিনি নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলার মৃত. আলাউদ্দিনের ছেলে।

ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানা গেছে, চাটমোহর পৌর সদর সহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার দোকানে ও রাস্তার যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধতা সৃষ্টি করে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছিল সার্কাসে আগত মাহুতরা। এমন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার বেলা ১২ টার দিকে পৌর শহরে হাতি দিয়ে মাহুতের চাঁদাবাজির মূহুর্তে উপজেলা প্রশাসন পুলিশের সহায়তায় হাতি সহ মাহুতকে আটক করে উপজেলা সহকারি কমিশনারের কার্যালয়ে সামনে নিয়ে যায়। পরে স্বাক্ষ্য প্রমাণ শেষে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বন্য প্রাণী সংরক্ষন আইনে দুই হাজার টাকা জড়িমানা আদায় করেন এবং পরবর্তীতে এমন কাজ না করার জন্য ঐ সার্কাসের মালিকের মুছলেকা নিয়ে মুক্তি দেন।