Main Menu

আসছে ফেসবুকের ক্রিপ্টোকারেন্সি লিবরা

ফেসবুকের ক্রিপ্টোকারেন্সি আনার কথা কয়েক মাস ধরেই আলোচনা হচ্ছিল। অবশেষে মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণার মাধ্যমে বিষয়টি খোলাসা করলেন মার্ক জাকারবার্গ। 

ক্রিপ্টোকারেন্সি ও ব্লকচেইন প্রযুক্তি নিয়ে এসে ইতিহাস সৃষ্টি করলো জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ফেসবুক। জাকারবার্গের লিবরা প্রজেক্টে ব্যবহারকারীর নিরাপত্তার ওপরই বেশি জোর দেয়া হয়েছে।

লিবরার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হবে আগামী বছরের মাঝামাঝিতে। এই ভার্চুয়াল মুদ্রার বিনিময়, পরিচালন ও সর্বোপরী নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিস্তারিত নিয়ে একটি শ্বেতপত্র প্রকাশ করেছে ফেসবুক। লিবরা ডট অরগ ওয়েবসাইটে এ ব্যাপারে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে।

শ্বেতপত্রের বর্ণনা অনুযায়ী, প্রচলিত ক্রিপ্টোকারেন্সির সঙ্গে লিবরার বেশ কিছু মৌলিক পার্থক্য রয়েছে। যদিও অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সির মতো লিবরার জন্যও ব্যবহার করা হচ্ছে ব্লকচেইন প্রযুক্তি এবং এটি হবে ওপেনসোর্স।

ইতিমধ্যেই বিশ্বের বৃহৎ আর্থিক লেনদেন পরিষেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান-সহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক গ্রাহক পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা ফেসবুকের সঙ্গে ‘লিবরা’ ক্রিপ্টোকারেন্সির বিষয়ে চুক্তি করেছে এই সংস্থাগুলো ফেসবুকের ক্রিপ্টোকারেন্সি তৈরির জন্য এক কোটি ডলার করে বিনিয়োগ করবে। সংস্থাগুলো ‘লিবরা অ্যাসোসিয়েশন’ নামে একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের অধীনে থেকে ফেসবুকের ডিজিটাল কয়েন ব্যবস্থাটি পরিচালনা করবে।

লিবরার নিরাপত্তা নিশ্চিত ও বিনিময় হার স্থিতিশীল রাখতে প্রচলিত মুদ্রার মতো রিজার্ভের ধারণা আনা হয়েছে। এই রিজার্ভের উৎস হবে বিনিয়োগকারী এবং ব্যবহারকারী। বিশেষ ইনভেস্টমেন্ট টোকেনের মাধ্যমে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান এই রিজার্ভে বিনিয়োগ করতে পারবে।

এছাড়া ফেসবুক নিজেদের ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার সহজ করতে প্রচলিত এটিএম বুথের মতো ব্যবস্থা রাখার পরিকল্পনা করছে। এসব বুথ থেকে ‘লিবরা’ মুদ্রা দিয়ে দেশের প্রচলিত সরকারি মুদ্রা নিতে পারবেন গ্রাহকরা।