Main Menu

পাবনার আটঘরিয়ায় নবাগত জেলা প্রশাসকের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

পাবনার আটঘরিয়ায় নবাগ জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদের বিভিন্ন স্তবের মানুষের সাতে এক মতনিবিময় সভা গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন আমার গ্রাম, আমার শহর কর্মসূচী বাস্তবায়নে সবাইকে কাজ করতে হবে। আগামী ১৭ মার্চের মধ্যে পাবনা জেলার ৯টি উপজেলার মধ্যে ৯ গ্রাম মডেল হিসেবে এই কর্মসূচী বাস্তবায়ন করা হবে। হাজার বছরের শ্রেষ্ট্র বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতি আমাদের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। তাঁর জন্ম শতবার্ষিকীতে সকলেই দশজন মানুষের উপকার করবো এবং ১০ টি বৃক্ষ রোপন করবো। তিনি এসময় আরও বলেন আমরা অর্থনৈতিক ভাবে অনেক এগিয়ে গেলেও সামাজিক ভাবে অনেক পিছিয়ে আছি। এসকল পিছিয়ে পড়া জায়গা থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে। মতবিনিময় সভায় তিনি উপজেলার সকল কর্মকর্তাকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য আহবান করেন।

উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে হলরুমে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বল্যবিবাহ বন্ধ, বয়স্ক, বিধাব, মাতৃত্ব কালীন ভাতা বিতরনের নানা অনিয়ম, হাসপাতালের ট্রমা সেন্টার চালু, চিকিৎসক সংকট ধূরকরা, লক্ষীপুরে ও উপজেলার সদর দেবোত্তরে স্থায়ী স্মৃতি সৌধ নির্মান বিষয় উঠে আসে।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যদেন আটঘরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তানভীর ইসলাম, আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সবাপতি মো. শহিদুল ইসলাম রতন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মোকলেসুর রহমান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আকরাম অলীর সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্যদেন, দেবোত্তর ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মো. সাইদুর রহমান, পাবনা জেলা পরিষদের সদস্য মোছা. রাশিদা পারভীন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. তহমিনা পারভীন, দেবোত্তর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মোহাঈম্মীন হোসেন চঞ্চল, চাদভা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম কামাল, আটঘরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রকিবুল ইসলাম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. জহুরুল হক, আটঘরিয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. সুলতান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক মো. জিল্লুর রহমান রানাসহ উপজেলার বিভিন্ন কর্মকর্তা, শিক্ষক, সুশিল সমাজের প্রতিনিধি, কৃষক প্রতিনিধি বক্তব্য দেন। সভায় বক্তারা উপজেলার শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, আইন শৃংঙ্খলার নানা বিষয় নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা করেন।