Main Menu

পাবনা জেলার অনুকুলে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে ১৫১ জনকে চূড়ান্তভাবে মনোনিত ; ১২৪ জন পুরুষ ও ২৭ জন নারী সদস্য নির্বাচিত

পাবনা জেলার অনুকুলে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে ১৫১ জনকে চূড়ান্তভাবে মনোনিত ; ১২৪ জন পুরুষ ও ২৭ জন নারী সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। ৮ জুলাই পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম বিপিএম পিপিএম, বগুড়া জেলা বিশেষ শাখা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল জলিল পিপিএম (পুলিশ সুপার পদোনত্তিপ্রাপ্ত), নওগাঁ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল আক্তার এর রিক্রুটমেন্ট বোর্ডে মেধা তালিকা হতে ১৫১ জনকে চূড়ান্তভাবে মনোনিত করা হয়। মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও নাতীদের ৪০ জনের মধ্যে ৩৮ জন এবং মুক্তিযোদ্ধা নাতনী আবেদনকারী ৪ জনই চূড়ান্তভাবে মনোনিত। নিয়োগ প্রাপ্ত সদস্যবৃন্দ বলেন-’’মাত্র ১০৩ টাকায় বাংলাদেশ পুলিশের গর্বিত পুলিশ সদস্য হওয়ার সুযোগ প্রদান করা হয়েছে।এজন্য আমরা খুবই আনন্দিত’’। পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম বিপিএম পিপিএম জানান- ’’চূড়ান্তভাবে মনোনিত সদস্যবৃন্দ সকলেই দরিদ্র ও দিনমজুর পরিবারের সন্তান। মনোনিত সকল উপযুক্ত ও যোগ্য প্রার্থীগণদের বাংলাদেশ পুলিশের সদস্য হওয়ায় অভিনন্দন জানান পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম’’। উল্লেখ্য – নারী সাধারণ কোটার মধ্যে মূলাডুলির বাসিন্দা দিন মজুর আঃ রহিমের মেয়ে রুমা আক্তার, পাবনা সদর থানাধীন শিবরামপুরের বাসিন্দা পাবনা শহরের দীনা পার্লারের গার্ড জালাল উদ্দিনের মেয়ে আজমী খাতুন ও লস্করপুরের বাসিন্দা অটোবাইক চালক মোঃ আয়নাল হক এর মেয়ে মিতু পারভীন, ভাঙ্গুড়া থানা এলাকার বাসিন্দা অটোবাইক চালক মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক এর মেয়ে শান্তা আক্তার মেঘলা ও সি.এন.জি অটোরিক্সা চালক রফিকুল ইসলামের মেয়ে রোকেয়া পারভীন এবং আতাইকুলা থানাধীন বাবা হারা এতিম (টিওশানি করে জীবিকা নির্বাহ করে) সুমাইয়া আক্তারসহ হত দরিদ্র পরিবারের মেয়েদেরও মেধার ভিত্তিতে ২১ জন মেয়েদেরকে চূড়ান্তভাবে মনোনিত করা হয়েছে এবং তারা বাংলাদেশ পুলিশের গর্বিত পুলিশ সদস্য হওয়ার সুযোগ লাভ করতে করেছে।পাবনা সদর থানাধীন দিন মজুর মোঃ সাহেদ আলীর ছেলে নাজমুল হাসান, দিন মজুর সাইদুল ইসলামের ছেলে নাসিম হোসেন, সাঁথিয়া থানাধীন দিন মজুর জগদীশ চন্দ্র ঘোষের ছেলে নিতাই চন্দ্র ঘোষ, বেড়া থানাধীন দিন মজুর জহুরুল ইসলামের ছেলে শান্ত মাহমুদ, সাঁথিয়া থানাধীন রিক্সা চালক আবুল কালাম আজাদের ছেলে মিজানুর রহমান, আমিনপুর থানাধীন রিক্সা চালক হারেজ আলীর ছেলে বোরহান আলী শেখ, ভাঙ্গুড়া থানাধীন হত দরিদ্র আবুল হোসেনের ছেলে আতিকুল হোসাইন, হতদরিদ্র কৃষক সালাউদ্দিন আহম্মেদ এর ছেলে সাখাওয়াত সাজু, হতদরিদ্র কৃষকের সন্তান জাহিদ হাসান এবং হতদরিদ্র কৃষকের সন্তান আব্দুল হালিমসহ অত্র জেলার ১১টি থানা এলাকার সর্ব পেশা জীবির মানুষদের ১২৪ জন (পুরুষ) সন্তান মেধার ভিত্তিতে চূড়ান্তভাবে মনোনিত করা হয়েছে এবং তারা বাংলাদেশ পুলিশের গর্বিত পুলিশ সদস্য হওয়ার সুযোগ লাভ করেছে।