Main Menu

পাবনার সুজানগরে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত সর্দার নিহত

পাবনার সুজানগর থানা পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে সাইফুল ইসলাম উরফে গেদা লাল (৩৫) নামে এক ডাকাত সর্দার নিহত হয়েছে। পুলিশের দাবি তার বিরুদ্ধে খুন, ডাকাতি, নাশকতা সহ একাধিক মামলা রয়েছে। সে সুজানগর উপজেলার নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের নরসিংহপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে। বুধবার ভোররাত ৪টার দিকে উপজেলার নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের হাসামপুর ইদগাহ মাঠের পাশে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

থানা পুলিশ জানায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে নিয়ে বুধবার ভোররাতে অস্ত্র উদ্ধারে গেলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গেদালালের সহযোগীরা পুলিশ কে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এরই একপর্যায়ে সাইফুল ইসলাম ওরফে গেদা লাল পুলিশের কাছ থেকে দৌড়ে পালাতে গিয়ে গুলাগুলিতে সে আহত হয়। এ সময় গেদা লালের সহযোগিরা পালিয়ে যায়।

পরে গেদা লালকে উদ্ধার করে সুজানগর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোররাত ৪টার দিকে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। নিহত সাইফুল ইসলামগেদা (লাল) এর মরদেহ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। সুজানগর থানা ইনস্পেক্টর (তদন্ত) হাদিউল ইসলাম জানান এ ঘটনায় আমজাদ হোসেন ও রুহুল ইসলাম নামে সুজানগর থানা পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়। ঘটনার সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি সার্টারগান ও কার্তুজ সহ দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করে।

পাবনা সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সুজানগর সার্কেল) ফরহাদ হোসেন জানান বন্দুকযুদ্ধে নিহত সাইফুল ইসলাম ওরফে গেদা লাল একজন আন্তঃজেলা ডাকাত দলের নেতা। উল্লেখ্য সম্প্রতি সুজানগর উপজেলার নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের শ্রী সনত কুমারের বাড়ী সহ ওই ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি বাড়ী ডাকাতির ঘটনা ঘটার পরই এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটলো।