Main Menu

তাড়াশে খালপূন:খননপ্রকল্পে অনিয়মের অভিযোগ

সিরাজগঞ্জেরতাড়াশউপজেলার দুটিগুরুত্বপূর্ণ খালেরনাম বিদ্যাধরখাল ও কুন্দইলেরখাল ।
উল্লেখিত দুটিখালদিয়েবৃহত্তরচলনবিলেরউত্তর-পূর্ব এলাকারঅধিকাংশপানিনিষ্কাষণহয়ে থাকে।সরকারিভাবেকয়েকবছরআগে এ দুটিখালখননকরাহয়েছিল। তলদেশ ভরাটহয়েযাওয়ায় এ বছরওসরকারখাল দুটিপূন:খননেরকর্মসূচিহাতে নেয় ।কিন্তু অভিযোগ উঠেছে বর্ষা মৌসুমেপানি থাকায়,খালেরতলদেশে কাজনাকরে দু’পাড় ছেঁটে সৌন্দর্য বর্ধনকরেবিলতুলে নেয়াহয়েছে। চলনবিলঅধ্যূষিত এ উপজেলায়এপ্রিলমাসের শেষেরদিকেউজানেরঢলগড়াপানিএসেখালভরেযায়।আরএসময়ইকথিতঠিকাদাররা দায়সারাভাবেকাজকরেসংশ্লিষ্টঅফিস কে ম্যানেজকরেবিলতুলে নেয় । দূনীর্তির এ চিত্রচলমানরয়েছেবছরের পর বছর ।


স্থানীয়সরকারঅধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে,দাতাসংস্থা জাইকারঅর্থায়নে টেকসইক্ষুদ্রাকারপানিসম্পদ প্রকল্পেরআওতায় দুই কোটি ২৯ লাখতিনহাজার ৭৪ টাকা ব্যয়ে তাড়াশউপজেলায় দুটিপ্রকল্পবরাদ্ধ দেয়া হয় । প্রকল্প দুটিরএকটিহচ্ছে‘মহিষলুটি-বড়বিল’ উপ প্রকল্পেরখালপূন: খননপ্রকল্প ।যারপ্রাক্কলিতব্যয়ধরাহয়েছে এক কোটিতিনলাখ ৭৫হাজারচার শ ২৪টাকা।খালটিরখননের দৈর্ঘ্য ধরাহয়েছেপাঁচহাজার,ছয় শ ১৫মিটার। অপরপ্রকল্পটিহচ্ছে‘হাঁড়িশোনা-কুন্দইলবিল’ উপ প্রকল্প ।এ প্রকল্পেরপ্রাক্কলিতব্যয়ধরাহয়েছে ৯১ লাখসাতহাজারছয় শ ৫০টাকা। খননের দৈর্ঘ্য ধরাচারহাজারসাত শমিটার।প্রকল্প দুটি স্থানীয়সরকারপ্রকৌশলঅধিদপ্তর(এলজিইডি) কর্তৃকইউনিয়নপর্যায়েপানিব্যবস্থাপনাসমবায়সমিতিরমাধ্যমে বাস্তবায়িতহচ্ছে ।


তাড়াশএলজিইডিঅফিসসূত্রজানায়,মহিষলুটি-বড়বিল উপ প্রকল্পটিবাস্তবায়িতহচ্ছে ২২ টিএলসিএসকমিটিদ্বারা।প্রকল্পটিবাস্তবায়িতহলে ৮৫০ হেক্টরজমিতেপানি সেচ দেয়া যাবে, হাঁস ও মাছচাষকরে ৯৫৮ টিপরিবারউপকৃত হবে ।
খোঁজনিয়েজানাযায়, এ প্রকল্পেরসার্বিকউদ্দেশ্যইহচ্ছে টেকসই কৃষি ও মৎস্য উৎপাদনবৃদ্ধিরমাধ্যমে সরকারের দারিদ্র হ্রাসকরণ উদ্যোগ কে সহায়তাকরা । দরিদ্র জনগোষ্ঠি কে বিশেষবিবেচনায় রেখেইউনিয়নপর্যায়ের উপ প্রকল্পএলাকারসকল শ্রেণি পেশারজনগণেরদ্বারা এই প্রকল্পপরিচালিতহবে। একটি টেকসইক্ষুদ্রাকারপানিসম্পদ ব্যবস্থাপনাপদ্ধতিপ্রচলনকরাইহচ্ছেএ প্রকল্পেরলক্ষ্য।কিন্তু বাস্তবেতাহয়নি। সমিতিরসভাপতিআব্দুসসালামমন্টুতারমনোনীত লোকজনদিয়েএলসিএসকমিটিগঠনকরেছেন। শ্রমিকেরপরিবর্তেকাজকরাহয়েছেখননযন্ত্র (এক্্রাভেটর) দিয়ে। অথচ শতকরা ২০ ভাগকাজকরারবিধানরয়েছেশ্রমিকদিয়ে ।দ্রুততমসময়েখালের দুপাড় ছেটে কাজসমাপ্তকরাহয়েছে। এলাকাবাসীরঅভিযোগজুনফাইনালেবিলতুলেনিতেই যেনতেনভাবেকাজেরসমাপ্তি দেখানোহয়েছে। প্রকল্পেরডিজাইনআছেখালেরগভীরে দুইফুটখননকরতেহবে ।নীচের বেডহবে ১৫ ফুট। কিন্তু খালেপানি থাকায়তলদেশে কোনকাজইহয়নি।বাঁশেরসাঁকো ও মাঠেরপানিনামারজন্য পাইপ দেয়ারকথা থাকলেও কোথাওতা দেখাযায়নি । এলসিএসকমিটিনামে থাকলেওবাস্তবেকাজকরেছেন এক প্রভাবশালীঠিকাদার। অভিযোগরয়েছে, এলসিএসকমিটিরঅনেকেরকাছ থেকে অগ্রিম চেকে স্বাক্ষর নেয়াহয়েছে ।প্রকল্পেরনিয়মানুযায়িসমিতিরএকটিকার্যালয় থাকারকথা থাকলেওবাস্তবেএর কোনঅস্তিত্ব চোখেপড়েনি ।


এ ব্যাপারেসমিতিরসভাপতিআব্দুসসালামমন্টুর সাথে যোগাযোগকরাতিনিবলেনআমিসমিতিরসভাপতিহলে ও মুলতকাজটিকরছে মোজাম্মেল নামের এক ঠিকাদারকাজেরবিষয়েকিছুবলতেপারবনা।
প্রকল্পটিরতদারকির দায়িত্বে থাকা উপ সহকারিপ্রকৌশলীইসমাইল হোসেন (বর্তমানেঅবসরেআছেন ) জানান, কাজবুঝে নেয়ার চেষ্টাকরেছি । কোথাওভুলত্রুটি থাকলে কর্তৃপক্ষ দেখবে। 


অপরদিকে হাড়িসোনা-কুন্দইলপ্রকল্পেরচিত্রওএরব্যতিক্রমনয় । এ প্রকল্পেরসভাপতিরদায়িত্বে রয়েছেনরওশন আরা । তিনিএলাকারবাইরেঅবস্থানকরায়তার সাথে যোগাযোগকরা সম্ভব হয়নি । তবেপ্রকল্পএলাকাঘুরে দেখা গেছে, চৌবাড়িয়াপয়েন্টে ব্রিজের দক্ষিণপাশেকাজহয়েছে অথচ উত্তরপাশে কোনপ্রকারকাজইহয়নি ।এ চিত্রপুরোপ্রকল্পএলাকাজুড়ে ।
এ প্রসঙ্গে তাড়াশউপজেলাপ্রকৌশলীআহমেদ আলীকাছেজানতেচাওয়াহলে, তিনিবলেনপরিমাপকরেইবিল দেয়া হয়েছে । কোথাওঅনিয়মহয়ে থাকলেপরিদর্শনকরেব্যবস্থা নেয়াহবে ।