Main Menu

ভাঙ্গুড়ায় নকল দুধ তৈরির অপরাধে আটক – ১

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় নকল দুধ তৈরির অপরাধে সঞ্জয় ঘোষ (৩২) নামে এক কারিগরকে এক বছেরের কারাদন্ড প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। বুধবার রাত দশটার দিকে উপজেলার ছোট বিশাকোল গ্রাম থেকে নকল দুধ তৈরির সরঞ্জামসহ তাকে আটক করে থানা পুলিশ। আটককৃত সঞ্জয় পার্শ্ববর্তী বেড়া উপজেলার মালদহপাড়া গ্রামের বৃন্দাবন ঘোষের ছেলে।

রাতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেস সৈয়দ আশরাফুজ্জামান।  পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আটককৃত সঞ্জয় গত দুই বছর পূর্বে ভাঙ্গুড়া উপজেলার চড়-ভাঙ্গুড়া গ্রামের দ্বীজেন ঘোষের কণ্যাকে বিয়ে করে সে তার শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করত। সঞ্জয় দীর্ঘদিন যাবৎ এই এলাকায় থেকে নিম্নমানের সোয়াবিন তেল, দুধ তৈরির চক পাউডার, সোডা ও কেমিক্যাল মিশিয়ে খাঁটি দুধ তৈরি করে বিভিন্ন দুগ্ধ ব্যবস্থাপনা সমিতির কাছে সরবরাহ করে আসছিল।

কয়েকমাস পূর্বে একই উপজেলার ছোট বিশাকোল গ্রামে আবুর বাড়ি ভাড়া নিয়ে গরুর নকল দুধ তৈরির কারখানা গড়ে তোলে। বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মোঃ মাসুদ রানা’র নেতৃত্বে উপজেলা স্যানিটারী ইন্সপেক্টর নুরুল ইসলাম ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। এসময় ছয় লিটার নিম্নমানের সয়াবিন তেল, দুধ তৈরির চক পাউডার, সোডা ও দুইটি ব্লেন্ডার মেশিন উদ্ধার করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হালিমা খানম বলেন, রাসায়নিক মিশ্রিত এসব ভেজাল দুধ মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। পেটের পীড়া, ডায়রিয়ার পাশাপাশি ক্ষতিকর রাসায়নিক মেশানোর কারণে এসব দুধ খেয়ে কিডনি ও লিভার বিকল হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মোঃ মাসুদ রানা আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নকল দুধ তৈরির সরঞ্জামসহ কারিগরকে আটক করে ইউএনওকে বিষয়টি জাননো হয়। পরে তিনি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে অভিযুক্তকে এক বছেরের কারাদন্ড প্রদান করেন। বৃহস্পতিবার তাকে পাবনা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।  এসময় উপস্থিত ছিলেন থানার ওসি মোঃ মাসুদ রানা, উপজেলা স্যানিটারী ইন্সপেক্টর নুরুল ইসলাম ও এএস আই সাজেদুল রহমান সাজু প্রমুখ।