Main Menu

সাঁথিয়ায় ঘূর্ণি ঝড়ে ৪ শতাধিক ঘর লন্ড ভন্ড খোলা আকাশের নিচে দুইশাধিক পরিবার

আবু ইসহাক,সাঁথিয়াঃ পাবনার সাঁথিয়ায় সোমবার সন্ধ্যায় প্রচন্ড বেগে আসা ঘূর্ণি ঝড়ে ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়েছে। দুইশতাধিক পরিবারের ৪ শতাধিক ঘর লন্ড ভন্ড। শিশুসহ আহত-১০। বিদ্যুত বিছিন্ন তিন ইউনিয়ন। উপজেলা প্রশাসন ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন। নগদ টাকা ও চাউল প্রদান।

জানাযায়, গত সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের রসুলপুর, মিয়াপুর, দাতালপুর, পাইক পাড়াসহ কয়েকটি গ্রামের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঘূর্ণি ঝড়ে বাড়ি ঘর লন্ড ভন্ড হয়ে যায়। ঝড়ে এলাকার প্রায় ১০ জন নারী,শিশু আহত হয়েছে। রসুলপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের মেয়ে জলি(৬) গুরুত্বর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। অন্যদেরকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বাড়ির ও রাস্তার বড় বড় গাছ ভেঙ্গে বিদ্যুত সংযোগসহ ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বিদ্যুতের পল ভেঙ্গে ও তার ছিড়ে প্রায় তিনটি ইউনিয়নের ৫০টি গ্রাম বিদ্যুত বিহীন রয়েছে। ঘূর্ণি ঝড়ে ক্ষতি গ্রস্ত ২ শতাধিক পরিবারের ৫শতাধিক সদস্য ওই দিন রাত থেকে খোলা আকাশের নিচে রয়েছে। তাদের মাথা গুজার ঠাঁই নেই। রাত থেকেই রান্না বন্ধ থাকায় এ পর্যন্ত তারা অনাহারে রয়েছে। সোনাই মোলালা, আব্দুর রহমান, শামসুর রহমান, খলিলুর রহমান, আ: রশিদসহ অনেকে জানান,তাদের বাড়ি ঘরের কোন চিহৃ নেই। মুহুর্তের ঝড়ে সব শেষ হয়ে গেছে।
গতকাল মঙ্গলবার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মাকছুদা বেগম সিদ্দীকা (অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক) ও স্থানীয় সরকার পাবনার উপ-পরিচালক আতিয়ুর রহমান, সাঁথিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান, নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম, ক্ষেতুপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুনছুর আলম পিনচু, গৌরীগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন।
নির্বাহী অফিসার সাংবাদিকদের জানান, ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি পরিবারের জন্য তাৎক্ষনিক ১ হাজার নগদ টাকা, ৩০ কেজি চাউল ও দুটি করে কম্বল দেওয়া হয়েছে। ঘূর্ণি ঝড়ে প্রায় ৮-১০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। পাবনা পল্লী বিদ্যুত সমিতিÑ এর আতাইকুলার ডিজিএম হামিদুল হক জানান ১০ গ্রামের প্রায় ২০০০টি মিটার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে