প্রধান সূচি

সাঁথিয়ায় ২ হত্যার ঘটনায় মামলা,আটক ১

সাঁথিয়া প্রতিনিধিঃ
পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার নাড়িয়াগদাই বাজারে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে সংঘর্ষে দুইজন হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের। মনজিলা নামক এক আসামী আটক। বাঁকী আসামীদের আটকের জোর চেষ্টা দাবি পুলিশের।
শনিবারের সংঘর্ষে দুই হত্যার ঘটনায় নিহত মুন্নাফের স্ত্রী রুলিনা খাতুন শনিবার রাতেই বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। যার নং ১১। মামলায় ১৯জন নামিক আসামীসহ অজ্ঞাত আরও ৭/৮জনকে আসামী করা হয়। শনিবার রাতেই মামলার এজাহার ভুক্ত ২ নং আসামী মনজিলা (৪৫) নামক সংঘর্ষের মূলহোতা বাচ্চুর স্ত্রীকে আটক করে থানা পুলিশ। রবিবার তাকে পাবনা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৪ মাস পূর্বে ক্রয়কৃত জমিতে শনিবার সকালে ঘর তুলতে যান উপজেলার নাড়িয়াগদাই গ্রামের শাখাওয়াতের ছেলে মুন্নাফ। এসময় পতিপক্ষ বাচ্চুর গ্রুপের সিদ্দিকের নেতৃত্বে হামলা চালিয়ে মুন্নাফ ও নাছির হোসেনকে হত্যা করে। তারা একে অপরের মামাতো ফুফাতো ভাই। মুন্নাফের স্ত্রী রুলিনা খাতুন জানান, আমার স্বামীকে ষড়যন্ত্র মূলক প্রতিপক্ষ বাচ্চু গ্রুপ হত্যা করেছে। আমি এ হত্যা কান্ডের বিচার চাই। তিনি দাবি করেন জমির বিরোধের ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছিলাম। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ’মি) ফয়সাল স্যার আমাদের পক্ষে রায় দিয়েছিলেন।
মুন্নাফের মামা আব্দুল করিম জানান, আমরা সকাল থেকেই ঘরের কাজ করছিলাম। এমন সময় সিদ্দিকের সাথে লোকজন এসে কাজ বন্ধ রাখতে বলে। এতে উভয় পক্ষ বাগবিদ্বদিতায় জরিয়ে পড়ে। একপর্যায়ে তারা মুন্নাফের উপর ঝাপিয়ে পড়ে মারপিট করে মেরে ফেলে। শত চেষ্টা করেও আমি তাদেরকে রক্ষা করতে পারলাম না।
এলাকা সূত্রে জানাযায় জমিসংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মুন্নায় ও বাচ্চুর সাথে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে উভয়পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।
সাাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান জানান, দুইজন হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। একজন আসামীকে আটক করেছি। বাঁকী আসামীদের আটক করতে জোর প্রচেষ্টা চলছে।