প্রধান সূচি

ভালোবাসায় আর শ্রদ্ধায় সিক্ত হলেন জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ

রফিকুল ইসলাম সুইট : বদলীজনিত কারণে বিদায়ের পথে পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ। জেলার সবোর্চ্চ পর্যায়ের সভা হলো জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভা। উন্নয়ন কমিটির সভায় সকল সদস্যদের ভালোবাসায় আর শ্রদ্ধায় সিক্ত হলেন কবীর মাহমুদ। জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, সুশীল সমাজ, সরকারি কর্মকর্তাসহ সকলের শুভাশীষে বিমুঢ় হলের জেলা প্রশাসক।

রবিবার সকালে পাবনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় সদস্যগনের বক্তব্যে কবীর মাহমুদের কৃতকর্ম ও দায়িত্বশীলতার চিত্র ফুটে উঠে।
এ সময় কবীর মাহমুদ জেলা সকল স্তরের মানুষের সহযোগীতা, ভালোবাসার কথা উরেøখ করে বলেন, একজন জেলা প্রশাসকের মুল কাজ হলো সমন্বয় করা আমি যথাসাধ্য চেষ্ঠা করেছি জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব, ব্যবসায়ী, সুশীল সমাজ সহ সকলের মধ্যে সমন্বয় করে বর্তমান সরকারের টেকসই উন্নযন কার্যক্রম তরান্বিত করার । তিনি আরো বলেন, জেলা প্রশাসক হিসেবে সংসদ, উপজেলা, পৌর নির্বাচন, মুজিব বর্ষ উৎযাপন, ডেঙ্গু ও করোনা মোকাবেলাসহ অনেক কাজের যোদ্ধা হয়ে রইলাম। ইছামতি উদ্ধারে কাজ শুরু হয়েছে চলবে তবে আন্দোলন থামাবেন না।

পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ এর সভাপতিত্বে সভায় এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী আতিয়ুর রহমান, সিভিল সার্জন, সংবাদ পত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান, সমাজসেবা ডিডি রাশেদুল কবীর, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শাহেদ পারভেজ, মোকলেসুর রহমান, সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী একেএম শামসুজ্জোহা, শিক্ষা প্রকৌশলীর নির্বাহী প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান, গনপুর্ত বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী আব্দুস সাত্তার, ডা. আবু জাফর, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোসলেম উদ্দিন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মনসুর রহমান, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মোকলেসুর রহমান, অধ্যক্ষ প্রকৌশলী জমিদার রহমান, বাসস ও ভোরের কাগজ প্রতিনিধি সহকারী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম সুইট, জেলা কালচারাল অফিসার মারুফা মঞ্জুরী খান, জেলা সুপার শাহ আলম খান, আটঘরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান তানভির ইসলাম, অধ্যক্ষ জমিদার রহমান, এডওয়ার্ড কলেজের সহযোগী অধ্যাপক আশরাফ আলী, বিআরবিডির চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ ।