প্রধান সূচি

চাটমোহরের ৪ তরুণ পিকেসি এসবিডি ক্রিকেট ‘ট্যালেন্ট হান্ট’ বিভাগীয় বাছাইয়ে উত্তীর্ণ

চাটমোহর প্রতিনিধি
দেশব্যাপী চলমান পিকেসিএসবিডি ক্রিকেট ‘ট্যালেন্ট হান্ট’ বাছাই কার্যক্রমে রাজশাহী বিভাগীয় লেভেলের বাছাইয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে পাবনার চাটমোহরের চার তরুণ শিক্ষার্থী। এ চার তরুণের মধ্যে একজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান ও বাকি তিনজন ডান হাতি পেস বোলার হিসেবে উত্তীর্ণ হয়। এখন তারা জাতীয় পর্যায়ের বাছাইয়ে উত্তীর্ণ হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন।

উত্তীর্ণ এ চার তরুণ হলেন, চাটমোহর পৌর সদরের চৌধুরীপাড়া মহল্লার লিমন হাসান, উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের সেনগ্রামের সজীব সিংহ, ডিবিগ্রাম ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামের সাব্বির হোসেন এবং হোগলবাড়িয়া গ্রামের সাদ্দাম হোসেন। লিমন ডান হাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে এবং বাকিরা ডান হাতি পেসার হিসেবে উত্তীর্ণ হয়। এ চারজনের তিনজনই চাটমোহর ক্রিকেট একাডেমীর উদীয়মান ক্রিকেটার।
আলাপকালে তারা জানান, প্রথমে পিকেসিএসবিডি ওয়েসবাইটে আবেদন করে ফোন নাম্বার, ঠিকানা, বয়স, খেলার ধরন বিভিন্ন বিষয় উল্লেখ করে অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়েছিল। পরে সেখান থেকে গ্রুপ নির্ধারণ এবং ডান কিংবা বাম হাত উল্লেখ করে জেলা, বিভাগ নির্ধারণ করে দেয়া হয়। এরপর গত ১ ডিসেম্বর পাবনা শহীদ অ্যাডভোকেট আমিনুদ্দিন স্টেডিয়ামে জেলা বাছাইয়ে ট্রায়াল এবং গত ২১ ডিসেম্বর রাজশাহী মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স মাঠে বিভাগীয় লেভেলের বাছাইয়ে ট্রায়াল দিয়ে উত্তীর্ণ হন তারা। শেষে ২৪ ডিসেম্বর বিকেলে সবার মোবাইলে উত্তীর্ণ হওয়ার অভিনন্দন মেসেজ আসে।
ডান হাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে উত্তীর্ণ লিমন হাসান চাটমোহর এনায়েতুল্লাহ সিনিয়র ফাযিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণীর ছাত্র। ডান হাতি পেস বোলার হিসেবে উত্তীর্ণ সজিব সিংহ খুলনার আজম খান সরকারি কলেজে অনার্স প্রথম বর্ষে ভর্তি হয়েছেন। সাব্বির হোসেন চাটমোহর সরকারি ডিগ্রি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে কলেজে ভর্তির চেষ্টা করছেনর্। সাদ্দাম হোসেন আটলংকা টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। লিমন, সজিব ও সাব্বির চাটমোহর ক্রিকেট একাডেমীর সাথে যুক্ত।
চাটমোহর ক্রিকেট একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক ও প্রশিক্ষক ফজলুল হক কালুর কাছে ক্রিকেট প্র্যাকটিস করছে অনেকদিন ধরে। এ ব্যাপারে ফজলুল হক কালু বলেন, এই খবরটি নি:সন্দেহে আনন্দের। আমি সব সময় স্বপ্ন দেখি চাটমোহর ক্রিকেট একাডেমীর ক্রিকেটাররা এক সময় দেশের নামকরা দলের হয়ে খেলবেন। তাদের মধ্যে সেই মনোবল ও দক্ষতা আছে।