প্রধান সূচি

বছরের শুরুতেই চমক আলিয়ার

‘গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি’ সিনেমার প্রথম লুক প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই আলিয়া ভাট ভক্তরা অপেক্ষায় ছিলেন কবে বড়পর্দায় দেখবেন তাকে। তবে এবার সেই প্রতীক্ষার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাচ্ছে সিনেমাটি। সিনেমাটির মুক্তির বিষয়ে ভক্তদের পাশাপাশি দারুণ উচ্ছ্বসিত আলিয়া ভাট।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি’ সিনেমাটি শুধু নির্মাতার কাছে নয়, আমার কাছেও বিশেষ। কারণ করোনা মহামারির মাঝে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজটি শেষ করেছি। অসাধারণ একটি গল্পকে বাস্তব রূপ দিয়েছেন নির্মাতা এবং এতে নিজের সেরাটা দিয়ে অভিনয় করার চেষ্টা করেছি সবাই। যা দর্শকদের সঙ্গে শেয়ার করার অপেক্ষায় আমিও ছিলাম। অবশেষে সিনেমাটি মুক্তি পাচ্ছে, এটা খুবই আনন্দের খবর। আশা করছি, অনেক প্রতীক্ষার পর ভালো একটি সিনেমা দেখতে পাবেন আপনারা।’

বলিউডের বহুল আলোচিত ‘গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি’ সিনেমাটিতে কাজ করতে গিয়ে আইনি ঝামেলায় পড়েছিলেন এর নির্মাতা, নায়িকা ও গল্পকার। সিনেমাটির গল্প গড়ে উঠেছে এক মাফিয়া কুইনের জীবনের গল্প নিয়ে। কেন্দ্রীয় চরিত্র নির্যাতিতা নারী গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি। সঙ্গীকে বিশ্বাস করে যিনি গুজরাট ছেড়ে মুম্বাই চলে এসেছিলেন। সেই পুরুষ সঙ্গী মুম্বাইয়ের এক পতিতাপল্লিতে তাকে বিক্রি করে দেয়। পরে গাঙ্গু মুম্বাইয়ের অন্ধকার দুনিয়ার সঙ্গে হাত মিলিয়ে হয়ে ওঠেন ক্ষমতাবান। এমন গল্পে ‘গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি’ নির্মাণ করেছেন সঞ্জয় লীলা বানশালি। এতে গাঙ্গুবাইয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন আলিয়া ভাট। কিছুদিন আগে ছবির শুটিং শেষ হওয়ার কথা ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন আলিয়া ভাট। জানিয়েছিলেন করোনা, লকডাউন, সাইক্লোনের চোখরাঙানির পরও ছবির শুটিং শেষ করেছেন তারা। আলিয়ার পোস্টে উঠে আসে গত দুবছর ধরে তাদের এই ছবির আড়ালে থাকা নানা কথা। একাধিক বাধা পেরিয়ে যেভাবে ছবির শুটিং শেষ হয়, সে কথা মনে করতে গিয়ে খানিক আবেগঘন হয়ে পড়েছিলেন অভিনেত্রী।

আলিয়া ইনস্টাগ্রামে একাধিক ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ‘২০১৯ সালের ৮ ডিসেম্বর আমরা গাঙ্গুবাইয়ের শুটিং শুরু করেছিলাম… এই ছবি ও সেট দুটি লকডাউন… দুটি সাইক্লোন, পরিচালক, অভিনেতাদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার মতো নানা বাধার মধ্যে দিয়ে গিয়েছে। আর আমরা ছবির শুটিং শেষ করছি ২ বছর পর! এতে আরও একটা ছবি হয়ে যায়।’

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ‘গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি’ সিনেমার টিজার মুক্তি পায়। ‘কামাথিপুরাকে কখনও অমাবস্যার অন্ধকার ঢেকে দিতে পারে না। কামাথিপুরায় থাকেন গাঙ্গুবাই’— এমনই মন্তব্য দিয়ে টিজার শুরু হয়। যেখানে আলিয়া ভাটকে একেবারে অন্য এক অবতারে দেখা যায়। গাঙ্গুবাইতে আলিয়াকে দেখে চমকে যান দর্শকরা। টিজার মুক্তি পাওয়ার আগে প্রকাশ্যে আসে সিনেমাটির পোস্টার। পোস্টার প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই দর্শকদের মধ্যে জল্পনা শুরু হয়। আলিয়ার গাঙ্গুবাই সঞ্জয় লীলা বনশালীর সঙ্গে তার প্রথম ছবি। ‘গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি’ এক মাফিয়া কুইনের জীবনের গল্প। এর আগে সালমানের সঙ্গে আলিয়ার সঞ্জয়ের ‘ইনশাল্লাহ’ ছবিতে কাজ করার কথা ছিল। তবে সেই ছবি বাতিল হয়ে যায়। ‘গাঙ্গুবাই কাটিয়াদি’ ছবির ওটিটি স্বত্ব বিক্রি করার চুক্তি হয়েছে ৭০ কোটি রূপিতে। তবে কোন ওটিটিতে দেখানো হবে, তা জানা যায়নি।

২০১২ সালে ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ ছবি দিয়ে অভিষেক হয় আলিয়ার। বলিউডে আগমনের পর থেকে একের পর এক ব্লকবাস্টার সিনেমায় অভিনয় করে পর্দা কাঁপিয়েছেন আলিয়া ভাট। যেকোনো চরিত্রই পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে পারেন এই অভিনেত্রী।

এই মুহূর্তে আলিয়া ব্যস্ত বেশ কয়েকটি সিনেমা নিয়ে। ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমাতে তাকে দেখা যাবে প্রেমিক রণবীর কাপুরের সঙ্গে। আর ‘ট্রিপল আর’-এ তাকে দেখা যাবে রামচরণ ও জুনিয়র এনটিআরের সঙ্গে। ইতিমধ্যেই চলচ্চিত্র প্রযোজনায় নেমেছেন তিনি। আলিয়া ভাট প্রযোজিত এবং অভিনীত ‘ডার্লিং’র শুটিং শুরু হয়েছে কয়েক মাস আগে। সব মিলিয়ে নতুন বছরে নতুন চমক নিয়ে আবারও পর্দা মাতাতে আসছেন আলিয়া ভাট।