প্রধান সূচি

আনোয়ারুল হক ছিলেন সততা আর্দশিক সাংবাদিকতার পথিকৃত : পাবনা প্রেসক্লাবের আলোচনা সভায় বক্তারা

পাবনা প্রতিনিধি :
পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, প্রেশক্লাব প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য ও ভাষা সংগ্রামী আনোয়ারুল হক ছিলেন সৎ ও আদর্শ সাংবাদিকতার পথিকৃত। পাবনার সাংবাদিকসহ সকল মানুষ তাকে চীরদিন স্মরণ করবে। তার আর্দশকে ধারণ করে নতুন প্রজন্মের সাংবাদিকদের এগিয়ে আসতে ভাবে। তারা বলেন, সাংবাদিক আনোয়ারুল হক ছিলেন, একজন নির্লোভ ব্যক্তি। তিনি ইচ্ছে করলে অনেক সম্পদের মালিক হতে পারতেন। কিন্তু তিনি তা করেননি। তিনি ছিলেন একজন আদর্শ মানুষ, আদর্শ সাংবাদিক।
রোববার রাতে পাবনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য ও ভাষা সংগ্রামী আনোয়ারুল হকের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক সআলোচনা সভায় বক্তারা এ কথা বলেন। পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং প্রেসক্লাবের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইয়াদ আলী মৃধা পাভেলের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন পাবনা প্রেসক্লাব সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, পাবনা সদর আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স। স্মরণসভায় প্রধান বক্তার স্মৃতিচারণমুলক বক্তব্য রাখেন, পাবনা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ভাষা সৈনিক একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক কলামিষ্ট বীরমুক্তিযোদ্ধা রণেশ মৈত্র। এ ছাড়াও অন্যন্যদের মধ্য বক্তব্য রাখেন, পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি, পাবনা ডায়বেটিক সমিতির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা বেবী ইসলাম, গণতন্ত্র পার্টি, পাবনা জেলা শাখার সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহমেদ বুড়ো, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান ও মরহুমের একমাত্র ছেলে শুভোন হক টুটুল। এর আগে আনোয়ারুল হকের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। মরহুম আনোয়ারুল হক ছিলেন দৈনিক উত্তেফাকের আমৃত সাংবাদিক।