প্রধান সূচি

ফাগুন দিনের সাজ

ফাল্গুনের প্রথম দিনে নারীরা ফুলেল সাজে ঘুরে বেড়ায় প্রজাপতির মতো। এ সময়টাতে কিছুটা শীতের রেশ থাকলেও গরম অনুভূত হয়। তাই ফাগুন দিনের সাজ কেমন হবে জেনে রাখুন।

ফাল্গুনে হলুদ, হলদেটে, বাসন্তী বা গেরুয়া পোশাকের প্রাধান্য দেখা যায়। পরের দিনটাতেই ভালোবাসা দিবস। সেদিন লাল রংকে বেছে নেন অনেকে। তবে সুন্দর পোশাক পরলেই হবে না, সে সঙ্গে সাজটাও হতে হবে মানানসই।
বসন্তের শুরুর দিনটাতে মেকআপটা খুব ভারী করা ঠিক নয়। মেকআপ নেওয়ার আগে অবশ্যই মুখ ভালো করে পরিষ্কার করে সানস্ক্রিন লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করবেন। এরপর মুখে লাগাবেন ম্যাট ফাউন্ডেশন। তারপর খানিকটা ফেস পাউডার লাগাবেন হালকাভাবে। আর সব সময় মনে রাখবেন পোশাকের রং অনুযায়ী হবে মেকআপের রং।

চোখে গাঢ় করে কাজলের রেখা টেনে দিয়ে ঠোঁট রাঙাতে পারেন লাল লিপস্টিকে। কাজল, আইলাইনার, আইশ্যাডো, গ্লিটার—যেটাই ব্যবহার করুন কেন, সব যেন হয় একই রঙের। এরপর কপালে টিপ আর হাতে পরুন কাচের চুরি। আর বসন্তের সাজে ফুলের কোনো না কোনো অনুষঙ্গ তো রাখতেই হবে। হোক তা চুলে, হাতে কিংবা ভিন্ন কোনো গয়না হিসেবে।

ফাগুন দিনে চুলের সাজে নানা রঙের তাজা ফুলের ব্যবহার নারীকে করে তোলে অনন্যা। খোঁপা বা বেণি করে চুলে গাদা ফুলের মালা পেঁচিয়ে নিতে পারেন। কেউ যদি চুল ছেড়ে রাখতে চান তাহলে একপাশে গুঁজে নিতে পারেন গোলাপ বা জারবেরা ফুল। যখন বড় ফুল পরবেন, তখন গলা ও কানের গয়নাটা খানিকটা হালকা বেছে নেবেন। মেরুন, হলুদ, সাদা, নীল রঙের চন্দ্রমল্লিকা, ক্যালানডুলা ফুলগুলোও বছে নিতে পারেন গাঁদা, গোলাপের বিকল্প হিসেবে।

ফাগুনের ফুলের গহনা বাদে অলংকারের তালিকায় বেছে নিতে পারেন মাটির, কাঠের বা মোমের জুয়েলারি। আদিবাসী গহনা, আফগানি জুয়েলারির রাখতে পারেন সাজের তালিকায়। তবে সারাদিন ঘোরাঘুরির সময় তৈলাক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন এবং পর্যাপ্ত পানি পান করতে ভুলবেন না।