প্রধান সূচি

রাজশাহীতে পেঁয়াজ বীজ চাষে লাভবান হবার আসায় বুক বেধেছে কৃষকরা

নাজিম হাদসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় এবার রাজশাহীতে দ্বিগুণ পরিমাণে পেঁয়াজের বীজ চাষ করেছেন কৃষকরা। গত বছর পেয়াজ বীজ জমিতে ভাল হলেও শেষে মহূর্তে ঝড় বৃষ্টির কারনে জমিতেই পেয়াজ বীজ নষ্ট হওয়ায় কৃষকদের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়। এমনকি কোন কোন কৃষক জমি থেকে পেয়াজ বীজ তুলতেই পারেনি। অনেক কৃষক হয়েছে সর্বশান্ত। যার ফলে, অন্যান্য বছরের তুলনাই চলতি মৌসুমে এ জেলায় ত দ্বিগুণ পরিমাণে পেঁয়াজের বীজ চাষ করেছেন কৃষকরা। গত বছর রাজশাহীতে ৪৩৪ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের চাষ করা হয়েছিলো। কৃষি অফিস বলছেন, পেয়াজ বীজ চাষ বেশী লাভবান হওয়ায় দিন দিন পেয়াজের বীজ চাষে ঝুকেছিল এ জেলার কৃষকরা। গত বছর বৈরী আবহাওয়ার জন্য পেয়াজ বীজ চাষ করে কৃষকেরা ব্যাপক ক্ষতি গ্রস্থ হওয়ায় এ বছর বেড়েছে পেয়াজ বীজের চাষ পেয়াজের বীজ চাষী মুরাদ হোসেন জানায়, গত বছর ১ বিঘা জমিতে পেয়াজ বীজ চাষ করে ঝড় বৃষ্টিতে পেয়াজ বীজ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় একেবারে সর্বশান্ত হওয়ায় এবার পেয়াজ বীজ চাষ করিনি। বোগদামারী গ্রামের কৃষক লালু বলেন গত বছর পেয়াজ বীজের চাষ করে ছিলাম। জমিতে পেয়াজ বীজও ভাল হয়েছিল। কিন্তু শেষ মহূর্তে ঝড় ও বৃষ্টি হওয়ায় জমিতেই সব পেয়াজ বীজ নষ্ট হয়ে যায়। এতে করে আমার ব্যাপক লোকসান হওয়ায় এখনো পর্যন্ত লোকসান কাটিয়ে উঠতে পারিনি। তাই এবার অর্থের অভাবে পেয়াজ বীজ অল্প চাষ করেছি। কদম হাজির মোড়ের কৃষক রবিউল ইসলাম বলেন গত বছর ৬ বিঘা জমিতে পেয়াজ বীজ চাষ করেছিলাম। প্রতি বিঘা জমিতে পেয়াজের বীজ চাষ করতে খরচ হয়েছিল প্রায় ৩০ হাজার টাকা করে মোট ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা। ৬ বিঘা জমি প্রায় সব জমির পেয়াজ বীজ নষ্ট হয়ে ছিল। এতে করে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয় আমার। এবার ৫ বিঘা জমিতে পেয়াজ বীজ চাষ করেছি। তিনি আরো বলেন এখন পর্যন্ত জমিতে পেয়াজের বীজ ভাল আছে। আবহাওয়া ভাল থাকলে ফলন ভাল হবে। এবার প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় আড়াই থেকে ৩ মণ করে ফলন হতে পারে। যদি ঠিক মত পেয়াজ বীজ ঘরে তুলতে পারি এবং গত বছরের মত দাম পাই তাহলে গত বছরের লোকসান তুলেও বেশী লাভ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জেলা কৃষি অফিসার বলেন, অন্য ফসলের চাইতে পেয়াজের বীজ অধিক লাভ জনক ফসল। কৃষকদের আশা এবার পেঁয়াজ বীজের বাম্পার ফলন হবে। গত বছরের চেয়ে এবার দ্বিগুণ পেঁয়াজের বীজ উৎপাদন রাজশাহীতে হয়েছে।