প্রধান সূচি

চাটমোহরের কৃতি সন্তান মোজাম্মেল হক ডিআইজি হলেন

চাটমোহর (পাবনা) : বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত উপ মহাপুলিশ পরিদর্শক হতে উপ মহাপুলিশ পরিদর্শক (ডিআইজি)পদে পদোন্নতি পেয়েছেন পাবনার চাটমোহরের কৃতিসন্তান মোঃ মোজাম্মেল হক বিপিএম (বার) পিপিএম (সেবা)। বর্তমানে তিনি পরিচালক র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)এর অধিনায়ক হিসেবে র‌্যাব-৪ মিরপুর,ঢাকা এ কর্মরত আছেন।

বুধবার (১০ মে ) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পুলিশ অধিশাখা-১ এর উপ সচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ পদোন্নতি প্রদান করা হয়।

জঙ্গি, মাদক,সন্ত্রাস নাশকতা প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।এ ছাড়াও তিনি, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের শীর্ষ জঙ্গি নেতাসহ দুর্ধর্ষ জঙ্গিদের গ্রেফতার করে বাংলাদেশে পুলিশের সর্বোচ্চ পদক বিপিএম (সাহসিকতা )পান । পুলিশের এই মেধাবী,চৌকষ ও জনবান্ধব কর্মকর্তা ইতিপুর্বেও একবার বিপিএম সেবা ও পিপিএম সেবা পদক পান। তিনি দেশের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার হিসেবে সরকার প্রবর্তিত ডিজিটাল অ্যাওয়ার্ড পদক লাভ করেন।

২৫ শে জানুয়ারী ১৯৯৯ সালে পুলিশ বিভাগে শিক্ষানবিস সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করে সার্কেল এ এসপি পঞ্চগড় ও রাজশাহী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাটোর, রাজশাহী, কুমিল্লা, ঢাকা জেলা। পুলিশ সুপার হিসেবে জয়পুরহাট, বগুড়া, নওগা, উপ পুলিশ কমিশনার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। সর্বশেষে প্রমোশন (এডিশনাল ডিআইজি)পেয়ে অধিনায়ক RAB-13 হিসেবে রংপুর বিভাগে এক বছর ৪ মাস এবং অধিনায়ক RAB-4 মিরপুর, ঢাকা হিসেবে অদ্যাবধি দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি মাঝে ১৩ মাস সুদানে জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশনে অংশ নিয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ২০ অক্টোবর মাসে মোজাম্মেল হক পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি লাভ করে জয়পুরহাট জেলায় যোগদান করেন। এরপর ২০১২ সালের ২৭ জানুয়ারি তিনি বগুড়ার পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। তিনি ২০১৫ সালের ৩ জুন তারিখে নওগাঁয় পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদানের পর গণমুখী পুলিশিং ব্যবস্থা গ্রহণ করে জেলার মাদক,সন্ত্রাস নাশকতা প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

তিনি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে পেশাগত প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন। এছাড়া এশিয়া, ইউরোপ এবং আমেরিকার বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে পেশাগত দক্ষতা অর্জনে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।