প্রধান সূচি

নাটোরের গুরুদাসপুরে ভ্যান চালক আব্দুর রহিম হত্যার রহস্য উদঘাটন ॥ গ্রেফতার ৩

নাটোর প্রতিনিধি
নাটোরের গুরুদাসপুরে পরকীয়া প্রেম ও পাওনা টাকা ফেরৎ চাওয়ায় ভ্যান চালক আব্দুর রহিমকে শ্বাষরোধ করে হত্যার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার (৩০ মে) সকালে প্রথমে বিপ্লবকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়। এ সময় বিপ্লব তার জবানবন্দীতে আরো দুইজনের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। পরে তার দেয়া তথ্য মতে রাতে হান্নান সরকার ও লিটন সরকারকে তাদের নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করা হয়। আজ মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহসীন।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহসীন জানান, ভ্যান চালক আব্দুর রহিমের স্ত্রীর সাথে প্রবাসী রায়হান সরকারের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেই সম্পর্ক চলাকালীন সময় রায়হান সরকার আব্দুর রহিমের কাছে তার জমি লীজ রেখে ২ লাখ টাকা নিয়ে মালেশিয়া যায়। লীজের মেয়াদ শেষে আব্দুর রহিম রায়হানের কাছে টাকা ফেরৎ চাইলে রায়হান ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এরই এক পর্যায়ে মালেশিয়া থেকে আব্দুর রহিমকে হত্যার পরিকল্পনা করেন রায়হান। পরে রায়হান সরকার তার ছেলে লিটন সরকার ও চাচাতো ভাই হান্নান সরকারকে ভাড়াটিয়া খুনি দিয়ে আব্দুর রহমানকে হত্যার নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশেই তারা বিপ্লবকে ১০ হাজার টাকায় চুক্তি করে গত ২৪ মে রাতে ভ্যান চালক আব্দুর রহিমকে ভুট্রা ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে শ্বাষরোধ হত্যা করে। এ ঘটনায় পরদিন নিহতের ভাই আব্দুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেফতার করা হয়।