প্রধান সূচি

ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ছাত্রলীগের ২ গ্রুপের মারামারি

কামরুল হাসান, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আম পাড়া নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (০৩ জুন) দুপুরে মানিক শীলের অনুসারী আবিদসহ কয়েকজন নিবিড় পালের অনুসারী প্রান্ত দত্তকে বঙ্গবন্ধু ও মান্নান হলের মাঝে পেয়ে মারধর করে। পরে নিবিড় পালের অনুসারিরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে এক হয়ে ধাওয়া দিলে মানিক শীলের অনুসারী আলাউদ্দিন নামের এক অনুসারি মেয়ে শিক্ষার্থীদের আলেমা খাতুন ভাসানী হলে আশ্রয় নেয়।

জানা যায়, গত বুধবার (০১ জুন) ক্যাম্পাসে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে বাগবিতন্ডার ঘটনা ঘটে। পরে এর জের ধরে মানিক শীলের কর্মী আবিদ চড় মারে নিবিড় পালের অনুসারী তানভীরকে। পরে সেই দিনই নিবিড় পালের অনুসারীরা এক হয়ে মানিক শীলের অনুসারি ওই আবিদকে মারধর করে। আজ দুপুরে মানিক শীলের অনুসারি আবিদসহ কয়েকজনের উপর পাল্টা হামলা করতে বিজয় অঙ্গনে অবস্থান নেয় নিবিড় পালের প্রায় শতাধিক কর্মীরা। সেখানে শিক্ষকবৃন্দ তাদের নানাভাবে বোঝানোর চেষ্টা করে। এ সময় মানিক শীলের দুই-তিন জন অনুসারীকে একা পেয়ে শিক্ষকদের সামনেই মারধর শুরু করে নিবিড় পালের অনুসারীরা।

এ পরিস্থিতিতে প্রক্টর ক্যাম্পাসে না আশা পর্যন্ত শিক্ষকবৃন্দ নিবিড় পালের অনুসারীদের শান্ত থাকার অনুরোধ জানান উপস্থিত শিক্ষকরা। পরে তারা হলে গিয়ে অবস্থান নেয়। এরপর থেকে ক্যাম্পাসে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে প্রধান ফটকের সামনে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা মানিক শীল জানান, খুব ছোট বিষয় নিয়ে জুনিয়রদের মধ্যে একটা ঘটনা ঘটেছিল। প্রক্টর স্যার বিষয়টি মিমাংসা করে দিয়েছেন।

বিশ^বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক নিবিড় পাল জানান, ছাত্রলীগের সমর্থক ও বিশ^বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের কিছু শিক্ষার্থীর মধ্যে আমপাড়া নিয়ে হাতাহাতি হয়েছিল। বিষয়টির মীমাংসা হয়েছে।

এ বিষয়ে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রক্টর ড. মীর মো. মোজাম্মেল হক জানান, ছাত্রলীগের সমর্থক দুই গ্রুপের মধ্যে আমপাড়া নিয়ে হাতাহাতি হয়েছিল। ঘটনার মীমাংসা করা হয়েছে। ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক বলেও জানান তিনি।