প্রধান সূচি

কথিত চিকিৎসকের প্রতিষ্ঠান সিলগালা

নাটোর প্রতিনিধি
এসএসসি পাশ করার পর ১৫ দিনের প্রশিক্ষন নিয়ে মা ও শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বনে গিয়েছিলেন নাটোরের গুরুদাসপুরের নাজমুল হাসান। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তলব করা হয় ওই চিকিৎসককে। এরপর রোববার ১৮ (সেপ্টেম্বর) বিকেলে ওই চিকিৎসকের প্রতিষ্ঠান সিলগালা করে ভ্রাম্যমান আদালত। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মেহেদী হাসান শাকিল।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মেহেদী হাসান শাকিল জানান, উপজেলা পৌরসদরের চাঁচকৈড় বাজারে সরকার ফার্মেসীতে চিকিৎসা প্রদান করতেন নাজমুল হাসান। এসএসসি পাশ করার পর মাত্র ১৫ দিনের কোর্স করেই মা শিশুসহ গুরুত্বপূর্ণ রোগের চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছিলেন দীর্ঘ ১২ বছর যাবৎ। গণমাধ্যমে এমন সংবাদ দেখার পর বিষয়টি উদ্বর্ধতন কর্তপক্ষের সাথে আলোচনা করা হয়। পরে রোববার বিকেলে সরকার ফার্মেসী ও ফার্মেসীর মধ্যে ওই চিকিৎসকের ব্যক্তিগত চেম্বার সিলগালা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানের খবর পেয়ে ওই চিকিৎসক আগেই পালিয়ে গিয়েছিলো। অভিযানে সহযোগিতা করেছে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সদস্য ও গুরুদাসপুর থানা পুলিশ সদস্যরা।