প্রধান সূচি

সাঁথিয়ায় জোর পূর্বক শিক্ষক সমিতির জায়গা দখলের চেষ্টা

রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা

সাঁথিয়া প্রতিনিধিঃ
পাবনার সাঁথিয়ায় প্রায় ১ যুগ ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কমিটি কর্তৃক সমিতির জায়গা
জোর পূর্বক দখলের চেষ্টা। রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছে স্থানীয়রা। মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির বিরুদ্ধে জোর করে পদ দখলসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ।
সাঁথিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অভিযোগ । লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ৩ নভেম্বর ২০০৯ সালে নির্বাচনের মাধ্যমে সাঁথিয়া উপজেলা প্রাথমিক সমিতির কমিটি গঠন হয়। সমিতির গঠনতন্ত্র মোতাবেক ৪বছর মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পূর্বেই নতুন কমিটি গঠন করার সুস্পষ্ট বিধান রয়েছে। কিন্তু বিভিন্ন টালবাহানায় সাধারণ শিক্ষকদের মতামত উপেক্ষা করে প্রভাব খাটিয়ে ১১ বছর জোরপূর্বক সমিতির পদ দখল করে আছেন। শিক্ষক সমিতির একটি নিজস্ব ভবন থাকলেও এই দীর্ঘ ১১ বছরে ভবনের ভাড়ার প্রাপ্ত অর্থ কোথায়, কিভাবে ব্যয় হয় বা গচ্ছিত আছে কিনা তা কেউ জানেন না। ১৩ ফেব্রুয়ারি সমিতির জায়গায় সভাপতির ভাইয়েরা জোর পূর্বক দখল করতে যায়। খবর পেয়ে কয়েকজন শিক্ষক বাধা দিলে তাদের মধ্যে কথাকাটা কাটি হয়। শিক্ষকরা আরও অভিযোগ করে বলেন, প্রায় ১ যুগ ধরে কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও বিভিন্ন ফোরামে পেশাজীবি এ সংগঠনের সভাপতি-সম্পাদক দাবী করে বিভিন্ন সুবিধাদী আদায় করে তা ভোগ করে আসছেন যা
প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির গঠনতন্ত্র বিরোধী। মেয়াদত্তীর্ণ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন ৫/৭ দিন পূর্বে কমিটির মিটিং করে রেজুলেশন করা হয়েছে। জায়গাটুকু খালি পড়ে আছে তাই সেখানে ঘিরে রাখার জন্য কাজ চলছিল। মেয়াদর্ত্তীর্ণ কমিটি নির্বাচন না হওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেন্দ্র ও জেলাতে নির্বাচন হয় নাই তাই আমাদের এখানেও নির্বাচন হয় নাই।
উপজেলা শিক্ষাকমিটির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ দেলোয়ার বলেন, শিক্ষকদের একটি অভিযোগ পেয়েছি। এ ব্যাপারে আমি উনাদেরকে (মেয়াদত্তীর্ণ কমটি) বলেছি তারা বলেছেন কিছুদিনের মধ্যে নির্বাচন দিয়ে কমিটি করা হবে।